Type Here to Get Search Results !

শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে যা বললেন:

0
- নিজস্ব প্রতিবেদক 
  
রবিবার (১৫ আগস্ট) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবেশিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন,"স্কুল-কলেজ খোলা এখন দুটি বিষয়ের উপর নির্ভর করছে। প্রথমত সংক্রমণের হার কমে যাওয়া আর দ্বিতীয়ত সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা। এ দুটি যখন হবে তখন আমরা যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারব।"

তিনি  বলেন, "করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কবে খুলে দিতে পারব সেটা বলার কোনো সুযোগ নেই। পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে। তবে যেকোনো সময় যেকোনো পরিস্থিতিতে আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে।"

ডা. দীপু মনি আরও বলেন, "এই মুহূর্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নির্ভর করছে অবস্থা কখন কী রকম দাঁড়ায় তার ওপর। গত বছরের অভিজ্ঞতা বলে নভেম্বর-ডিসেম্বরে সংক্রমণ অনেক কমে গিয়েছিল। এ বছরও সেটি হলে সে সময়ে আমরা ভেবেছি এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নিতে পারব। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও খুলে দেওয়া সম্ভব হবে। বিশেষজ্ঞরা যেমন বলেন যে, শতকরা পাঁচ ভাগ বা তার কম হলে তখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া যায়।  

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থীদের অধিকাংশকে টিকার আওতায় আনা হয়েছে। তবে ৪০ লাখের উপরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে কবে নাগাদ পুরোপুরি টিকার আওতায় আনা যাবে তা বলা কঠিন।"

এর আগে বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছিলেন, পূর্ব ঘোষণা অনুসারে আগামী নভেম্বরে এসএসসি এবং ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়ার জন্য সকল প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। এজন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের ওপর বর্তমানে অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম চলছে। আশা করছি, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নতি হলে উল্লেখিত সময়ে দুটি পরীক্ষা আমরা নিতে পারব।

এর আগে আরও দুই দফায় প্রস্তুতি নিয়েও করানোর সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা সম্ভব হয়নি।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় এবং এর দশ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ওই বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরে দফায় দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়িয়ে সর্বশেষ তা আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত করা হয়।

Post a Comment

0 Comments

Top Post Ad

Below Post Ad